শিরোনাম :
কচুয়ায় চেতনা যুব নারী সংস্থার উদ্যোগে এতিম ও গরীব শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে বাধা সৃষ্টিকারী পাকিস্তানী প্রেতাত্তাদের স্বপ্ন পুরন হয়নি হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি সীতাকুণ্ডে সন্ত্রাসী হামলায় দুই যুবক গুরুতর আহত বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আব্বাস আলী খান স্মরণে নাইট ক্রিকেট টূর্নামেন্ট উদ্বোধন অনেকটা অর্থাভাবে চসিক; প্রকল্প গ্রহণেও নেই আগ্রহ প্রধানমন্ত্রীর “উপহার ঘর” চাচ্ছে গুরুদাসপুরের বঞ্চিত হরিজন সম্প্রদায়ের সদস্যরা কচুয়া প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদকের সুস্থ্যতায় দোয়া কামনা বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আব্বাস আলী খান স্মরণে নাইট ক্রিকেট টূর্নামেন্ট উদ্বোধন ব্যারিষ্টার মওদুদ আর নেই সিরাজদিখানে অবৈধ ভাবে খাল ভরাট, প্রশাসনের বাঁধায় বন্ধ

মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন আমিরুল

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ, ২০২১
  • ৫০ বার পঠিত

লেনিন জাফর, মাগুরা প্রতিনিধি।

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার বাখেরা গ্রামের সন্তান আমিরুল ইসলাম আমীর
সেনাবাহিনীর চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণের পর এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন।তার আপ্রাণ প্রচেষ্টায় বাখেরা গ্রামের প্রতিটি রাস্তা এলজিইডির মাধ্যমে পাঁকা করণ হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারই গ্রামের মানুষ।
সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন।

সবেক ওয়ার্ড মেম্বার শান্তি রাম বিশ্বাস জানান, আগে মন্দিরে যেতে তাদের খুব কষ্ট হতো।মন্দিরের রাস্তা পাঁকাসহ গ্রামের ৫টি রাস্তা তাদের গ্রামের সন্তান আমিরুল ইসলাম আমীরের প্রচেষ্টায় সরকারিভাবে পাঁকাকরণ হয়েছে, ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।ওই গ্রামের রাস্তা পাঁকা হওয়ার করণে পার্শ্ববর্তী জারিয়া,সোনাইকুন্ডি,মর্কদম খোলা গ্রামের মানুষ সহযেই একস্থান থেকে অন্য স্থানে যেতে পারছে।

তরুলতা বিশ্বাস নামে একজন গৃহিনী জানান,আমাদের গ্রামে কোথাও কাঁচা রাস্তা নেই, প্রধানন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়ে সবই পাঁকা হয়েছে।সন্তানেরা ভালোভাবে স্কুলে যেতে পারছে।
কৃষক হাবীব জোয়ার্দার জানান,
আগে মাঠ থেকে ফসল নিতে খুব কষ্ট হত, এখন রাস্তা পাঁকা হয়েছে ভ্যান কিনেছেন ফসল খুব সহজেই বাড়িতে এবং বাজারে নিতে পারেন।

এলাকার হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে তাঁর নিরন্তর প্রয়াস, সর্বত্নক এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাওয়ায় প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন। রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন, সামাজিক উন্নয়নসহ অসহায় মানুষের পাশে থেকে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে এলাকায় নিজের মুখ উজ্জ্বল করেছেন।

আমিরুল ইসলাম আমীর জানান,চাকুরী জীবন শেষে ২০১২ সাল থেকে এলজিইডির মাধ্যমে গ্রামের রাস্তা পাঁকা করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।ইতিমধ্যে এলজিইডির মাধ্যমে গ্রামের প্রতিটি রাস্তা পাঁকাকরণ হয়েছে।যতটুকু পারেন মানুষকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করেন। যতদিন বেঁচে থাকবেন এলাকার উন্নয়নের কাজ করে যাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
Developed by banglawebs